একটু সহযোগীতা পেলে বাঁচতে পারে নিষ্পাপ শিশু রনির জীবিন

 

সীতাকুন্ড প্রতিনিধি: মোঃ মহিন উদ্দিন।

চট্রগ্রামে সীতাকুন্ড থানার ৫নং বাড়বকুন্ড ইউনিয়নের নয়নাভিরাম প্রাকৃতিক সৌন্দর্য্যের লীলাভূমি ঐতিহ্যবাহী মান্দারীটোলা গ্রাম। আজকে আপনাদের কে এই মায়া ভরা মান্দারীটোলা গ্রামের এক দুঃখী ব্যক্তির সাথে পরিচয় করিয়ে দিব। যিনি মরণব্যাধি এক অসুস্থতায় শয্যাশায়ী হয়ে আছেন দীর্ঘদিন ধরে।

রোগীর নামঃ- মোঃ নাজিম উদ্দিন (রনি)
পিতাঃ- মুহাম্মদ মহি উদ্দিন
মাতাঃ- সাজেদা বেগম
বাড়ি: ছালে আহম্মদ ড্রাইভারের বাড়ী
গ্রামঃ- পূর্ব মান্দারীটোলা (প্রকাশ দাড়ালিয়া পাড়া) বাড়বকুন্ড, সীতাকুন্ড, চট্রগ্রাম।

৩নং ওয়ার্ড মান্দারীটোলা (প্রকাশ দাড়ালিয়া পাড়া) গ্রামের বাসিন্দা দিনমজুর মুহাম্মদ মহি উদ্দিন ও সাজেদা বেগমের একমাত্র সন্তান মোঃ নাজিম উদ্দিন (রনি) বয়স ১১ বছর। মাহমুদাবাদ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ৪র্থ শ্রেনীর মেধাবী ছাত্র। যার এখন পড়াশুনার পাশাপাশি খেলা করার সময়, সে এখন অসুস্থ হয়ে প্রায় শয্যাশায়ী এবং এখন পড়ালেখা করতে প্রায় কষ্টসাধ্য। দীর্ঘ দিন যাবত সীতাকুণ্ড উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন অবস্থায় থাকার পরে বিশেষজ্ঞ ডাক্তারগণ বলেছে, অনতিবিলম্ব চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হসপিটালে গিয়ে অপারেশন করানোর জন্য। তার অপারেশন করাতে কমপক্ষে প্রায় ৮০,০০০ (আশি হাজার) টাকা লাগবে। অভাব অনটনের সংসারে ৩ জন সদস্যের পরিবার তার। যেখানে দেশের বর্তমান করোনার পরিস্থিতিতে দুমুঠো ভাত নিয়মিত জুটে না। সেখানে অপারেশন ও চিকিৎসা করানো তার পক্ষে অসম্ভব ব্যাপার।

অসুস্থ সন্তানের দুখিনী মা বলেন, আমার ৩ জন সদস্যের পরিবারে ছেলের বাবা কোন সহযোগিতা করেনা, এই অবস্থায় আমার একমাত্র ছেলে টনসিল হয়ে যাওয়ায় চিকিৎসা ভাবত অনেক টাকা দরকার। এমন অবস্থায় আমার পরিবারের ভরনপোষণ করা আমার পক্ষে অনেক কষ্টসাধ্য। তাই আমি সমাজের বৃত্তবান লোকদের কে একটু সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেওয়ার জন্য বিনীত ভাবে অনুরোধ জানাচ্ছি। আপনাদের একটু সহযোগীতা হয়তো আমার ছেলের সুন্দর জীবনে ফিরে আসতে পারবে ইনশাআল্লাহ।

যোগাযোগঃ-
রোগীর মাঃ- ০১৮২-২৬৫৭৪৪২
অথবাঃ- ০১৮২-৫৬৪৪৪৭৭

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Shares