নীলফামারীর সৈয়দপুরে করোনার উপসর্গ নিয়ে এক যুবকের মৃত্যু

 

নীলফামারী প্রতিনিধি :শাহিন

সৈয়দপুর করোনার লক্ষণ নিয়ে প্রথম কোন রোগীর মৃত্যু হলো। শহরের নয়াটোলা এলএসডি গোডাউনের পাশে স্বর্ণ ব্যবসায়ী শাহেদ (৩৫) নামে ওই যুবকটি আজ বিকাল ৪ টার সময় মারা যায়।

সে ২৫ মার্চ ঢাকা থেকে আসে।মার্চ মাসে সৈয়দপুরে আসার পর প্রায় ৪৫-৫০দিন উনি সুস্থই ছিলেন। পরে হঠাৎ মে মাসের ১৭/১৮ তারিখ থেকে হালকা জর ও গলা ব্যথা শুরু হয় এবং পরবর্তীতে শ্বাসকষ্ট ও অন্যান্ন উপসর্গও দেখা দেয়।পরে ২৮ মে তার নমুনা সংগ্রহ করা হয়। তবে ফলাফল আসার আগেই মারা যায় সে।

তাই উপজেলাবাসী ধারণা করছে যে যদি তিনি করোনা পজিটিভ হোন তাহলে তিনি অন্য কারো সংস্পর্শে এসেই করোনা পজিটিভ হয়েছেন কেননা উনি ঢাকা থেকে আক্রান্ত হয়ে সৈয়দপুরে আসেন নি।

সৈয়দপুরেই কোথাও আক্রান্ত হতে পারেন। সেটা আপাতত অনুমানও ধরা হবে। কারন ফলাফল পজিটিভ নাকি নেগেটিভ তা এখনো আসেনি।
তার ৪ বছরের শিশু সন্তান রয়েছে । যে হেসে খেলে বেড়াচ্ছে, বাবা যে নেই তার বোঝার ক্ষমতা নেই।

এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ নাসিম আহমেদ জানান, করোনা টেস্টের রেজাল্ট দেরীতে আসায় একটু সমস্যা হচ্ছে।উক্ত ব্যক্তি যেসকল মানুষের
সংস্পর্শে এসেছিলেন তাদের সনাক্ত করে পরিপূর্ণভাবে কোয়ারেন্টাইনে রাখার ব্যবস্থা করা হচ্ছে।তাছাড়া তিনি সবাইকে সর্বোচ্চ সতর্কতা অবলম্বন করার জন্য এবং অপ্রোয়জনে বাহিরে ঘুরাঘুরি না করার জন্য বিশেষভাবে অনুরোধ করেছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Shares