মানবিক পুলিশ সুকুমার এর রক্তদান

সিলেট প্রতিনিধি:এম রাসেল আহমেদ।

পুলিশ জনগণের সেবক প্রমাণ করে দিলেন।

প্রমাণ করে দিলেন সুকুমার একজন বাংলাদেশ পুলিশ সদস্য।

সকাল ৮ টা থেকে রাত ৮ টা পর্যন্ত ডিউটি 12 ঘন্টা ডিউটি শেষে ব্রাকের যখন উপস্থিত হন তখনিই কল দেন একজন রোগীর পরিবার কল দিয়ে কান্না করেদেন,,আমার ইমারজেন্সি ব্লাড লাগবে ভাই।

আপনার রক্তের গ্রুপ ও পজেটিভ আপনি কি দিতে পারবেন, কখন অবাক হয়ে গেলেন সুকুমার,
কখন বলেন কান্নার কি আছে আমি দিবো ইউনিফর্ম খুলে আসতেছি,কোথায় লাগবে,
বলেন, সিলেট, এম.এ.জি.ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে। টিক আছে আসতেছি,,,,,,,

সুকুমার বলেন ভাই আমি মাত্র ডিউটি শেষ করে মাত্র আসলাম, ঠিক আছে আমি আসতেছি,,,,,,

20 মিনিটের মাথায় সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পৌঁছে যান,,,

তখন সেখানে সিরিয়াল বেশি দেখে চলে আসেন, চোহাট্টা মাতৃমঙ্গল রেড ক্রিসেন্টে,
ও পজেটিভ ব্লাড দিতে,

রক্ত দিয়ে সুকুমার বলেন আর ব্লাড লাগলে কলদিয়েন আমার বেস্ট ফ্রেন্ড তারা ব্লাড দিবে,,,
রোগীর পরিবারকে বলেন।

এম রাসেল বলেন
সত্যি এরকম কথা শুনে অবাক হয়ে গেলাম যে সুকুমার আজ জীবনের প্রথম ব্লাড দিলেন এমন ভাবে কথা দিছেন যা রোগীর পরিবারের মুখে হাসি ফুটিয়ে দিয়েছেন।

পুলিশ জনগণের বন্ধ প্রমান করে দিলেন,বাংলাদেশের পুলিশ সদস্য সুকুমার,

অচেনা অজানা ফোনের সাথে সাথে ছুটে যাওয়া কেউ একজন
পুলিশ সদস্যকে স্যলুট,

অনেক দিনের ইচ্ছা ছিলো নিজের ব্লাড দিবেন,,
কর্মস্থলে কারণে দেওয়া সম্ভব হয়নি,,
এখন দিতে পেরে আমি গর্ববোধ প্রকাশ করেন,

পুলিশ জনগণের বন্ধু প্রমাণ করে দিলেন বাংলাদেশের পুলিশ সদস্য সুকুমার।

রক্তদান যুবসমাজ ফাউন্ডেশন কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য সুকুমার।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Shares