শ্রীমঙ্গলে করোনা উপসর্গ নিয়ে মৃত্যুবরণকারী মুক্তিযোদ্ধা বিকাশ দত্ত’র সৎকার করেছে একরামুল মুসলিমীন টিম।

 

স্টাফ রিপোর্টার: আব্দুস সামাদ।

মৌলভীবাজার জেলার শ্রীমঙ্গলের সবুজবাগে করোনা উপসর্গ নিয়ে মৃত্যুবরণকারী বীর মুক্তিযোদ্ধা বিকাশ দত্ত এর সৎকার করেছে একরামুল মুসলিমীন ফাউন্ডেশনের মৌলভীবাজার জেলা ও উপজেলা টিমের সদস্যরা।

শ্রীমঙ্গল উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ নজরুল ইসলাম (Nazrul Islam) জানান-যথাযথ সংক্রমণবিধি অনুসরণ করে বুধবার ভোররাতে বীর মুক্তিযোদ্ধা বিকাশ দত্ত এর সৎকার করা হয়েছে। রাতেই সৎকার করার কারণে গার্ড অব অনার দেয়া হয়নি। পরিবারের লোকজন করোনা সন্দেহ করায় মৃত্যুবরণকারী বিকাশ দত্ত এর স্যাম্পল নেয়া হয়েছে। পরিবারের সবার স্যাম্পল নেয়া হবে। রিপোর্ট আসার আগ পর্যন্ত তারা কোয়ারেন্টাইনে থাকবে।

একরামুল মুসলিমীন ফাউন্ডেশন এর টিম প্রধান এহসান জাকারিয়া জানান-শ্রীমঙ্গল উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ নজরুল ইসলাম এর মাধ্যমে একরামুল মুসলিমীন ফাউন্ডেশন এর জেলা ও উপজেলা শাখার টিম সদস্যরা মুক্তিযোদ্ধা বিকাশ দত্ত এর সৎকার কার্য সম্পাদন করে। একরামুল মুসলিমীন ফাউন্ডেশন এর টিম প্রধান এহসানুল হক জাকারিয়া (Ahsan Jakaria) ও সৎকার শাখার প্রধান মঞ্জু দাশ মৌলভীবাজার থেকে শ্রীমঙ্গল পৌর শ্মশান ঘাটে রাত ১টা ২০ মিনিটে পৌছেন। এসময় শ্মশান ঘাটে উপস্থিত ছিলেন মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ডের সদস্য সচিব জসিম উদ্দিন ও মৃত্যুবরণকারী মুক্তিযোদ্ধার ছেলে বাপ্পা দত্ত।

এর আগে মুক্তিযোদ্ধাের বাসা থেকে ট্রাকে করে মুক্তিযোদ্ধার লাশ শ্মশান ঘাট পর্যন্ত নিয়ে আসেন সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার আশরাফুজ্জামান আশিক (Ashrafuzzaman Ashik), শ্রীমঙ্গল থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) সোহেল রানাসহ (Sohel Rana)
শ্রীমঙ্গল থানা পুলিশের একটি টিম।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ নজরুল ইসলাম জানান-আমাদের প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত ও তালিকাভুক্ত ইকরামুল মুসলিমীন ফাউন্ডেশন এর টিম সদস্যরা মুক্তিযোদ্ধার সৎকার কাজ সম্পন্ন করে।

জেলা টিম সদস্যদের পাশাপাশি উপজেলা টিম সদস্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন হেলাল উদ্দিন ও হারুন মিয়া।

শ্রীমঙ্গলে গভীর রাতে সৎকারে ইকরামুল মুসলিমীন ফাউন্ডেশন, উপজেলা প্রশাসন, থানা পুলিশের অংশগ্রহণ মানবিকতার অনন্য উদাহরণ হয়ে থাকবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Shares